Cvoice24.com

বহদ্দারহাটে আবারও অভিযান, পিছু হটছে না দখলদাররা

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:১১, ১৭ এপ্রিল ২০২১
বহদ্দারহাটে আবারও অভিযান, পিছু হটছে না দখলদাররা

বহদ্দারহাটে আবারও চসিকের অভিযান

বারবার উচ্ছেদেও পিঁছু হটছে না বহদ্দারহাট এলাকার চারপাশজুড়ে অবৈধভাবে দোকান গড়ে তোলা দখলদাররা। চলতি বছর মার্চের পর থেকে গত দেড় মাসে বহদ্দারহাট পুলিশ বক্স, ফুটপাতসহ বহদ্দারহাটের বিভিন্ন স্পটে অন্তত ৪ দফা উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)।

এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার (১৭ এপ্রিল) বহদ্দারহাট পুলিশ বক্সের পিছনে বড় নালার উপর থেকে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করেছে চসিক। চসিকের কর্মকর্তারা জানান, মূলত সেখানে ক্রাশ পোগ্রামের অংশ হিসেবে মশার ওষুধ ছিটানো ও পরিচ্ছন্নতার কাজ করতে গিয়েছিলো চসিকের একটি টিম।

কিন্তু পুলিশ বক্সের পেছন দিকে বড় নালাটির বিভিন্ন অংশে দোকান স্থাপন করেছে ব্যবসায়ীরা। তাছাড়া নগরের ব্যস্ততম মোড় দিয়ে বয়ে যাওয়া ওই নালাটি ঘিরে বানানো হয়েছিল কাঠসহ বিভিন্ন ভারি জিনিসপত্র রাখার গোডাউন। এতে করে নালার পানি চলাচলে জলবদ্ধতা সৃষ্টির পাশাপাশি মশার ওষুধ ছিটানো সম্ভব হচ্ছিল না। পরে নালাটি ঘিরে গড়ে তোলা দোকান পাটের অবৈধ অংশ গুঁড়িয়ে দিয়েছে চসিক। চলাচলের পথ দখল করে রাখা বেশ কিছু কাঠও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এসময়।

এর আগে গত ১৮ মার্চ চান্দগাঁও থানাধীন বহদ্দারহাট পুলিশ বক্স সংলগ্ন এ এলাকায়  অবৈধভাবে দোকানপাট উচ্ছেদ করেছিল চসিক। ওই সময় চার ব্যক্তিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এর ক’দিন পর ২৯ মার্চ চসিকের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালায় বহদ্দারহাট কাঁচাবাজারের ফুটপাত সংলগ্ন এলাকায়। চলাফেরার পথে মালামাল রেখে দুর্ভোগ সৃষ্টির দায়ে ওইদিন ৮ জন দোকানির বিরুদ্ধে মামলাসহ ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

চসিকের কর্মকর্তারা বলছেন, বারবার উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করার পরও দখলমুক্ত করা যাচ্ছে না বহদ্দারহাটসহ বিভিন্ন এলাকার ফুটপাতগুলো। যার পেছনে কাজ করছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল। 

চসিকের উপপ্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোর্শেদুল আলম সিভয়েসকে বলেন, ‘মেয়র মহোদয়ের নির্দেশে বহদ্দারহাটে আজকে ক্রাশ পোগ্রাম চালানো হয়েছে। এবসময় বহদ্দারহাট মোড়ের নালার আশপাশ দোকানের বর্ধিত অংশ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাছাড়া সড়ক ও ফুটপাতে ব্যবসায়ীদের রাখা বেশকিছু গাছের গুঁড়ি ও কাঠ রিয়ে নেওয়া হয়েছে।’

এদিকে বহদ্দারহাটের উচ্ছেদ অভিযানে গিয়ে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন চসিক মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘ক্রমান্বয়ে নগরের সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। সৌন্দর্য বর্ধন চুক্তি কোনভাবেই লংঘন করা যাবে না। দখলদাররা যত প্রভাবশালী হোক না কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এসময় বহাদ্দারহাট পুলিশ বক্সর পেছনে বড় নালার পাশ থেকে অবৈধ দোকান উচ্ছেদ, মশকনিধন এবং পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন মেয়র রেজাউল করিম।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন চসিকের নির্বাহী প্রকশলী আবু সিদ্দিক, মির্জা ফজলুল কাদর, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা সফিকুল মান্নান সিদ্দিকী যিশু, অতিরিক্ত পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোর্শেদুল আলম প্রমুখ।

-সিভয়েস/এপি

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়