Cvoice24.com

পাহাড়ে অবৈধ বসবাসকারীদের তালিকা হালনাগাদ করে পুনর্বাসনের উদ্যোগ

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২২:০৪, ২১ জুন ২০২২
পাহাড়ে অবৈধ বসবাসকারীদের তালিকা হালনাগাদ করে পুনর্বাসনের উদ্যোগ

পাহাড়ের পাদদেশে উচ্ছেদ অভিযান।

পাহাড়ের পাদদেশে যারা অবৈধভাবে বসবাস করছে তাদের তালিকা রয়েছে। তথ্য হালনাগাদ করে তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আশরাফ উদ্দিন।

মঙ্গলবার (২১ জুন) বিকেলে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির ২৪তম সভায় তিনি এ কথা জানান।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, অবৈধভাবে বসবাসকারীদের নেপথ্যে কারা আছে সেটার তালিকা আমাদের কাছে নেই। এর পেছনে কারা কাজ করছে সেটা ইনভেস্টিগেশন ছাড়া বের করা খুবই কঠিন। মামলা মোকাদ্দমায় মারা যাওয়ার পর যদি সেটা ইনভেস্টিগেশন করা হয় তাহলে নেপথ্যকারীদের তালিকা বের হবে। কিন্তু অবৈধভাবে বসবাসকারী যারা আছেন তাদের তালিকা আমাদের কাছে আছে। তালিকাটা জেলা প্রশাসক কার্যালয়েও আছে; সেটা ইতিমধ্যে তৈরি করা হয়েছে। এটা পুরোপুরি হালনাগাদ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। মাসখানেকের মধ্যে এসব পাহাড়ে যারা বসবাস করছে এদের হালনাগাদ তালিকা তৈরি করা সম্ভব হবে।

পাহাড়ি অঞ্চলে বসবাসকারীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, পাহাড়ি অঞ্চলে এতদিন আমরা প্লেইন লেন্ডে (সমতল) যারা রিস্কি অবস্থায় ছিল বা দরিদ্র ছিল এদের সবার জন্য ঘর তৈরি করে দিয়েছি। কিন্তু সরকার এখন পাহাড়ের মধ্যে যারা ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় বসবাস করছে এবং যাদের ঘর-বাড়ি নেই; তাদেরও পুনর্বাসনের জন্য উদ্যোগ নিচ্ছে। যাদের জমি, ঘর-বাড়ি কিছুই নেই, পাহাড়ে থাকছে তাদেরকেই পুনর্বাসন করা হবে। সরকার সারাদেশেই লাখ লাখ ঘর তৈরি করছে বিশেষ করে দরিদ্র লোকদের পুনর্বাসন করার জন্য এবং তাদের বসবাসের জন্য। ইতিমধ্যে এটা নিয়ে কাজ শুরুও হয়েছে। নতুন একটা ছক তৈরি করা হয়েছে। এ ডাটাবেজ ফাইনালেজ হওয়ার পর আমরা আশা রাখছি আগামী একমাসের মধ্যে আমাদের এই তালিকা তৈরি পুরোপুরি শেষ হবে। সরকার বরাদ্দ দিলে যারা আশ্রয়ণের আওতায় আছে তালিকার মাধ্যমে তাদের সিস্টেমের আওতায় এনে আশ্রয়ণ প্রকল্পের নিয়মানুসারে জমি খুঁজে তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে।

সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (ভূমি) মো. মাসুদ কামালের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. জাকির হোসেন খান, নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (পশ্চিম) আবদুল ওয়ারীশ, পরিবেশ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম জেলার পরিচালক মফিদুল হক, পরিচালক (মহানগর) হিল্লোল বিশ্বাসসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রতিনিধিরা।

সিভয়েস/এমএম


 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়